মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে কয়েক দফা পিছিয়েছে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ (ডিপিএল)। নতুন সূচিতে ফের শুরু হচ্ছে মের শেষে। তাই ঘরোয়া ক্রিকেটের সর্বোচ্চ এ আসরে অংশ নিতে পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) খেলা হচ্ছে না দেশ সেরা ক্রিকেট তারকা সাকিব আল হাসান।

অতিমারির কারণে মাস দুই আগে মাঝপথে থেমে যায় পিএসএল। স্থগিত হয়ে যাওয়া পিএসএলের বাকীটা শেষ করতে আগামী ১ জুন থেকে শুরু করতে চায় পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। যেখানে লাহোর কালান্দার্সের হয়ে খেলার কথা সাকিবের। এছাড়া তার জাতীয় দলের সতীর্থ মাহমুদউল্লাহর মুলতান সুলতানসের এবং লিটন দাসের করাচী কিংসের হয়ে খেলার কথা রয়েছে।

তবে একই সময়ে প্রিমিয়ার লিগ শুরু হওয়ায় ঘরোয়া লিগের আসরকেই সাকিব বেছে নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের কর্মকর্তা তরিকুল ইসলাম টিটু। এ অলরাউন্ডারকে যে এবার মোহামেডানের হয়ে খেলবেন তা আজ মঙ্গলবার চিঠি দিয়ে বিষয়টি ক্রিকেট কমিটি অব মেট্রোপলিসকে (সিসিডিএম) জানিয়েছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ।

‘সাকিবের স্বাক্ষরিত একটি চিঠি আমরা সিসিডিএমে জমা দিয়েছি যেখানে বলা হয়েছে সে এ প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে আগ্রহী। সে পিএসএলে খেলবে না এবং ডিপিএলের অংশ হতে চায়। সে একজন মুক্ত খেলোয়াড় কারণ নিষেধাজ্ঞার কারণে ২০১৯-২০ মৌসুমে তাকে কেউ দলে নেয়নি। এখন সে নিতে পারবে এবং আমরা তাকে দলে নিতে আগ্রহ দেখিয়েছি। যদিও বিসিবি এখনও অনুমতি দেয়নি তবে আমরা শিগগিরই পাব বলে আশা করি’ – একটি অনলাইন পত্রিকাকে এমনটাই বলেছেন টিটু।

আগামী ৩১ মে থেকে নতুন করে শুরু হচ্ছে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ। সময় স্বল্পতার কারণে ওয়ানডের পরিবর্তে এবার টি-টোয়েন্টি সংস্করণে অনুষ্ঠিত হবে এ আসর। এর আগে করোনা কারণে দুইবার পিছিয়েছে এ আসর।

জানা গেছে, সাকিব প্রিমিয়ার লিগে খেলতে আগ্রহী হলেও মাহমুদউল্লাহ ও লিটন পিএসএলে যেতে আগ্রহী। তবে গুঞ্জন রয়েছে, তাদেরকে ঘরোয়া লিগ রেখে পাকিস্তানে যেতে ছাড়পত্র নাও দিতে পারে বিসিবি।

উল্লেখ্য, এর আগে বাংলাদেশ জাতীয় দলের খেলা রেখে আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য প্রস্তুতি নিতে ভারতের ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ আইপিএলে খেলতে গিয়েছিলেন সাকিব। এ নিয়ে নানা সমালোচনাও হয়েছে। তবে এবার ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ টি-টোয়েন্টি সংস্করণে হওয়ায় পাকিস্তানের ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে না গিয়ে দেশেই খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এ অলরাউন্ডার।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *